"এইচ.এস.সির ফলাফল দেখে নিন" (ক্লিক)
বাংলাদেশের বৃহত্তম শিক্ষামূলক কমিউনিটিতে
আপনাকে স্বাগতম!
close
close

অনুচ্ছেদ রচনা বিশ্বায়ন

নব্বইয়ের দশকের শুরু থেকে পরিবর্তিত বিশ্বব্যবস্থায় সারাবিশবে সবচেয়ে বেশি আলােচিত বিষয় ছিল বিশ্বায়ন। মার্শাল ম্যাকলােহানের মতে 'গ্লোবাল ভিলেজ'-এর অন্য একটি রূপই হচ্ছে বিশ্বায়ন। একে অভিহিত করা হয় এমন একটি প্রক্রিয়া হিসেবে, যা রাষ্ট্র ও সম্প্রদায়ের পুরােনাে কাঠামাে ও সীমানা অবলুপ্ত করেছে। বিশ্বায়নকে বলা হচ্ছে একটি সাংস্কৃতিক ও অর্থনৈতিক জীবনের ক্রমবর্ধমান রাজাতীয়করণ, যার ফলে সৃষ্টি হয়েছে এক বিশ্ব সীমানা, এক বিশ্ব সম্প্রদায়। সুতরাং দেখা যাচ্ছে, বিশ্বায়ন কোনাে একক প্রক্রিয়া নয় বরং এটি সর্বব্যাপী ও সার্বিক প্রক্রিয়া। বিশ্বায়ন রাষ্ট্রীয় সীমানার প্রাচীর ভেঙ্গে অর্থনৈতিক 1. যােগাযােগ ও লেনদেন, সাংস্কৃতিক আদান-প্রদান, রাজনৈতিক মিথস্ক্রিয়া প্রভৃতি সকলক্ষেত্রেই ব্যাপক পরিবর্তন নিয়ে এসেছে। ফলে মানুষের দৃষ্টিভঙ্গি ও চিন্তা-চেতনা এবং বিশ্বাসের ক্ষেত্রে একটি বৈশ্বিক অবকাঠামাে তৈরি হয়েছে। কিন্তু বর্তমানে যে বিশ্বায়নের কথা বলা হচ্ছে। তা মূলত পুঁজিবাদের সাম্রাজ্যবাদী বিশ্বায়নের উপনিবেশ ছাড়া কিছু নয়। এর মাধ্যমে সম্পদশালী উন্নত দেশগুলাে তৃতীয় বিশ্বের ওপর অর্থনৈতিক নয়া উপনিবেশবাদ প্রতিষ্ঠা করে পুঁজিবাদের হাতকে শক্তিশালী করতে চায়। তৃতীয় বিশ্বের দেশগুলাের অর্থনৈতিক সংকট ও রাজনৈতিক দেউলিয়াপনার সুযােগ উন্নত দেশগুলাে গ্রহণ করছে। সুতরাং তাদের উপেক্ষা করা সম্ভব না হলেও নিজেদের অস্তিত্ব রক্ষার প্রয়ােজনে আমাদের সতর্ক থাকতে হবে। অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক দিক থেকে আন্তর্জাতিক সমাজের সাথে তাল মিলিয়ে চলার মতাে উপযােগী করে নিজেদের গড়ে তুলতে হবে।

আপনার মন্তব্যটি করুন (0)


আপনার মতামত দিন, অন্যদের মতামত দেখুন