বাংলাদেশের বৃহত্তম শিক্ষামূলক কমিউনিটিতে আপনাকে স্বাগতম!

ইন্টারনেট অনুচ্ছেদ রচনা


ইন্টারনেট হচ্ছে বিশ্বব্যাপী বিস্তৃত একটি কম্পিউটার নেটওয়ার্ক। এটিকে নেটওয়ার্কের নেটওয়ার্কও বলা হয়। দুই বা ততােধিক কম্পিউটার তার, মডেম, স্যাটেলাইট প্রভৃতির মধ্যে সমন্বয় করার প্রক্রিয়াকে ইন্টারনেট বলা হয়। বর্তমানে কম্পিউটার নেটওয়ার্কিং এর মাধ্যমে উপাত্ত বিনিময়ের এটিই একমাত্র মাধ্যম। এটি খুব সহজে এবং দ্রুততারসাথে কাজ করে। প্রয়োজনীয় তথ্য পেতে একজন ব্যক্তির প্রয়োজন ইয়াহু এবং গুগল অন্বেষণ করা। ইন্টারনেটের প্রয়োজনীয়তা অবর্ণনীয়। একটি ব্যবসা-বাণিজ্যের ক্ষেত্রে কার্যকর ভূমিকা পালন করে। বর্তমানে, ইন্টারনেট ভিত্তিক ই-কমার্স বিশ্বব্যাপী খুব জনপ্রিয় হয়েছে। কারণ, খদ্দেররা বাজারে যাওয়া ছাড়াই যেকোনাে কিছু ক্রয় করতে পারে। এটি শিক্ষা ক্ষেত্রেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। শিক্ষার্থীরা এবং শিক্ষকগণ ইন্টারনেটের মাধ্যমে সহজেই প্রয়োজনীয় তথ্য পেতে পারে। তারা লাইব্রেরী তে না গিয়ে যে কোন বই পড়তে পারে । কেবল শিক্ষার্থীরা এবং শিক্ষকগণই নয়—ব্যবসায়ী, অর্থনীতিবিদ, ডাক্তার, রাজনীতিবিদ এবং অন্যান্য পেশাজীবীরা ইন্টারনেটের দ্বারা উপকৃত হতে পারে। ইন্টারনেটের কিছু অপকারিতাও রয়েছে। আমাদের যুব সম্প্রদায় ইন্টারনেটের মাধ্যমে সহজেই অশ্লীল চিত্রকল্প এবং ভিডিও পেতে পারে। ফলে, তারা এতে আসক্ত হয়ে পড়ে এবং এভাবে তাদের নৈতিক চরিত্র ক্ষতিগ্রস্ত হয়। যা-হোক, আমাদের দেশে ইন্টারনেটের ব্যবহার খুবই ব্যয়বহুল। বাংলাদেশের মানুষের জন্য ইন্টারনেটের সহজ সুযোগের ব্যবস্থা করতে আমাদের সরকারের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা উচিত।

Post a Comment

0 Comments Replies Comment