বাংলাদেশের বৃহত্তম শিক্ষামূলক কমিউনিটিতে আপনাকে স্বাগতম!

নিরক্ষরতা অনুচ্ছেদ রচনা


নিরক্ষরতা বলতে লেখা-পড়ার অক্ষমতাকে বুঝায়। একজন নিরক্ষর লােক জানে না কীভাবে লিখতে-পড়তে হয়। এটিকে অন্ধকারের সাথে তুলনা করা হয়। এটি ব্যক্তিগত ও জাতীয় উন্নয়নের প্রতিবন্ধক এবং একটি সামাজিক অভিশাপ। নিরক্ষরতা বাংলাদেশে একটি বিরাট সমস্যা। আমাদের দেশের বেশির ভাগ মানুষ লিখতে পড়তে পারে না। এ কারণে, বাংলাদেশে স্বাক্ষরতার হার এত কম। বস্তুত, এটি এত কম যে কল্পনা করা যায় না। পরিসংখ্যান দেখায় যে, বাংলাদেশের ৪০%-এর বেশি মানুষ নিরক্ষর। বাংলাদেশে নিরক্ষরতার অনেক কারণ রয়েছে। দরিদ্রতা নিরক্ষরতার মূল কারণ। আমাদের জনসাধারণের বেশির ভাগ দরিদ্র সীমার নিচে বাস করে। তারা দিনে দুই বেলা আহার করতে পারে না। ফলে, তারা তাদের ছেলে-মেয়েদের স্কুলে পাঠাতে পারে না। সামাজিক সচেতনতার অভাব নিরক্ষরতার আরেকটি কারণ। নিরক্ষরতার অনেক কুফল রয়েছে। কিছু অন্যান্য সমস্যা যেমনঃ দরিদ্রতা, বেকারত্ব এবং সন্ত্রাসবাদ নিরক্ষরতার কারণে বৃদ্ধি পায়। যা-হােক, নিরক্ষরতা দূর করতে আমাদের এগিয়ে আসা উচিত। প্রাথমিক এবং মাধ্যমিক শিক্ষা অবশ্যই বিনামূল্য এবং বাধ্যতামূলক করতে হবে। সমাজ থেকে বয়স্কদের নিরক্ষরতা দূর করতে গণশিক্ষা কর্মসূচি গ্রহণ করতে হবে। সর্বোপরি, সামাজিক সচেতনতা অবশ্যই বৃদ্ধি করতে হবে। ছাপা এবং বৈদ্যুতিক মাধ্যম এ ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারে। আমি বিশ্বাস করি যে, সামনের দিনগুলোতে বাংলাদেশের নিরক্ষরতার অভিশাপ থেকে মুক্তি পাবে।

Post a Comment

0 Comments Replies Comment