বাংলাদেশের বৃহত্তম শিক্ষামূলক কমিউনিটিতে আপনাকে স্বাগতম!

নারী-পুরুষ বৈষম্য অনুচ্ছেদ রচনা

মানবাধিকার ভােগ করার ক্ষেত্রে পুরুষ এবং নারীর মধ্যে পার্থক্যই হল নারী-পুরুষ বৈষম্য। বাংলাদেশে এটি তীব্র যা জন্ম থেকে শুরু হয়। কন্যা শিশু, ছােট মেয়েরা, নারীরা এবং বৃদ্ধি মহিলারা সবচেয়ে বেশি ভুক্তভোগী। এর পশ্চাতে অনেক কারণ রয়েছে। সামাজিক কুসংস্কার, প্রথা, ধর্মীয় অপব্যাখ্যা এবং সামাজিক কাঠামো লিঙ্গ বৈষম্যের প্রধান কারণ। পিতা-মাতারা মেয়ে শিশুদের বােঝা হিসেবে মনে করে এবং তাদের থেকে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব মুক্তি পেতে চেষ্টা করে। তারা মনে করেন যে পুরুষরা পরিবারে অধিক অবদান রাখতে পারে। তাই তারা সবদিক দিয়ে ছেলে শিশুদের বেশি যত্ন নেন। লিঙ্গ বৈষম্যের প্রভাব অনেক। মেয়েদের এবং পরিবারের নারীদের দেহ-মনে এর কিছু দীর্ঘমেয়াদী নেতিবাচক প্রভাব আছে। তারা ভাবতে পারে না যে তারা পরিপূর্ণ মানুষ। এই ভাবনার কারণে তারা অপুষ্টি এবং নির্দয় আচরণ ভােগ করে। অন্যদিকে নারীশিক্ষা মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়। যা-হােক, জনসাধারণের মধ্যে সচেতনতা সৃষ্টি করে এই সমস্যার সমাধান করা যায়। নিরক্ষরতা, অজ্ঞতা এবং কুসংস্কার সমাজ থেকে দূর করতে হবে। কেবল এভাবেই এ সমস্যার সমাধান করা যেতে পারে।

Post a Comment

0 Comments Replies Comment